Home

লক্ষ্মীপুরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির গাড়ি ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকুর গাড়িতে হামলা চালিয়ে কাঁচ ভাঙচুর করা হয়েছে। সোমবার (২১ জুন) দুপুরে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার তোরাবগঞ্জ ইউপি নির্বাচন চলকালীন সময়ে তোরাবগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
হামলার ঘটনায় তোরাগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সল আহমেদ রতনকে দায়ী করেছেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু। এ সময় তার সাথে থাকা ৮ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানান তিনি।
আওয়ামীলীগ সভাপতি পিংকু জানান, কমলনগরের তোরাবগঞ্জ ইউপি নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তিনি ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের অফিসে যান। অফিসটি ভোট কেন্দ্র থেকে প্রায় ৯শ’ মিটার দূরত্বে ছিলো। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফয়সাল আহম্মেদ রতন লোকজন নিয়ে তার উপর হামলা চালায়। হামলাকারীরা পিংকুসহ অনান্য আওয়ামীলীগ নেতাকে দলীয় কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। পুরে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। হামলাকারীরা তার গাড়ির কাঁচ ভাঙচুর করে এবং তাদের দলীয় নেতাদের ৬টি মোটর সাইকেল ভাঙচুর করে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুরু থেকেই আওয়ামী লীগ নেতা পিংকু তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী মির্জা আশরাফুল জামাল রাসেলের পক্ষে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। রাসেলের প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান রতন (ঘোড়া)। নির্বাচনী কেন্দ্রের পরিস্থিতি পরিদর্শনে আওয়ামী লীগ নেতা পিংকু দুপুরে তোরাবগঞ্জে আসলে হামলার শিকার হন ।
তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফয়সল আহমেদ রতন বলেন, আমি ভোট কেন্দ্রগুলোতে ব্যস্ত ছিলাম। ঘটনার সময় আমি ওই কেন্দ্রে ছিলাম না। কারা আওয়ামীলীগ সভাপতি পিংকুর গাড়িতে হামলা চালিয়েছে, তা আমার জানা নেই। তবে ভোট চালাকালীন সময়ে কেন্দ্রগুলোতে তিনি নৌকার পক্ষে অবস্থান নিয়ে প্রভাবিত করেছেন বলে পাল্টা অভিযোগ করেন রতন।
কমলনগর থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Related Articles

how do you feel about this website ?

Back to top button
%d bloggers like this: