Home

লক্ষ্মীপুরে বিজয়ী প্রার্থী’র বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীর অভিযোগ, ফলাফল বাতিলের দাবিতে মামলা

সোহেল বাঙ্গালীর , কমলনগর ঃ লক্ষ্মীপুর কমলনগরে বিজয়ী চেয়ারম্যানকে ফুল দিয়ে বরন করলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন রাজু। এসময় বিজয়ী চেয়ারম্যানের গলায় ফুল দিলেন এবং মিষ্টিমুখ করলেন তিনি। আবার ফল বাতিল চেয়ে করলেন মামলা ।

পুণরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে বর্তমানে আবারো ইউপি আসনে অধিষ্টিত হলেন খালেদ সাইফুল্যাহ।  নির্বাচনের প্রায় দুই মাস পর ওই নির্বাচনের ফলাফল বাতিল চেয়ে মামলা করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন রাজু ।

ঘটনাটি ঘটেছে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরকাদিরা ইউনিয়নে। জানাযায় , ৮ নং  চর কাদিরা ইউনিয়নে  ৩য় ধাপের ইউপি নির্বাচনে (১১ নভেম্বর)   আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ  পুণরায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন । নির্বাচনে  আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের আশ্রাফ উদ্দিন  রাজু জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকলেও অবশেষে অল্প ভোটে হেরে গেলেন । এলাকাবাসী জানান, বিপুল ভোটে রাজু ভাই চেয়ারম্যান হওয়ার কথা কিন্তু রাজু ভাইকে হারানো হয়েছে । আশ্রাফ উদ্দিন রাজু ফলাফল বাতিল চেয়ে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালত ও নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে একটি  মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রতিদ্বন্দ্বী ছয় প্রার্থীকে দায়ি করা হয়েছে । তারা হলেন, চেয়ারম্যান খালেদ সাইফুল্লাহ,  স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন আহম্মদ হাওলাদার (প্রতীক: আনারস), আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. নুরুল ইসলাম (প্রতীক: নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী ইব্রাহিম বাবুল মোল্লা (প্রতীক: চশমা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মহি উদ্দিন হাওলাদার (প্রতীক: ঘোড়া) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শরীফ হোসেন (প্রতীক: অটোরিকশা)।

এ সময়  মামলায় তিনি নির্বাচনের দুর্নীতি, অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ তোলেন । একটি সূত্র জানান, সোমবার (২৪ জানুয়ারি) চেয়ারম্যান খালেদ সাইফুল্লাহর কাছে মামলার কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠানো হয়েছে   ।

নির্বাচনের পরের দিন আশ্রাফ উদ্দিন রাজন ওরফে রাজু ফুলের মালা দিয়ে খালেদ সাইফুল্লাহকে বরণ করে নেন। এসময় একে অপরকে মিষ্টিমুখও করান।

মামলায় তিনি আরো অভিযোগ করেন, উপর মহলের নির্দেশে প্রিজাইডিং অফিসাররা মোটরসাইকেলের প্রাপ্ত ভোটের ব্যালট উল্লেখযোগ্য অংশ হাতপাখার ব্যালট বান্ডিলের সাথে যুক্ত করেছেন ।  সঠিকভাবে ভোট গণনা করলে তিনি নির্বাচিত হতেন ।  হাতপাখার প্রার্থী নন, তিনি নির্বাচিত হয়েছেন  ঘোষণা ও গেজেট চেয়ে ট্রাইব্যুনালে নালিশ করেছেন।   আশ্রাফ উদ্দিন  রাজু একজন আওয়ামী লীগ নেতা। দলের বিরুদ্ধে গিয়ে নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে । একসময় (২০১১-১৬)  তিনি চরকাদিরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন । এলাকায় বিভিন্নরকম উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে তিনি বেশ সুনাম অর্জন করেছেন ।

বিজয়ী চেয়ারম্যান মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ বলেন,সোমবার বিকেলে আমি নোটিশ পেয়েছি। আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করে নোটিশের জবাব দেব।

কমলনগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জায়েদুল হোসেন চৌধুরী বলেন, মামলা হওয়ার  বিষয়টি আমি অবগত নয় ।

 

Related Articles

how do you feel about this website ?

Back to top button
%d bloggers like this: