Monday , July 26 2021
Breaking News
Home / হোম / লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ভাতার নামে অসহায়দের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক খায়ের

লক্ষ্মীপুরে বিভিন্ন ভাতার নামে অসহায়দের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক খায়ের

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরে মাতৃত্ব ও বয়স্ক ভাতা দেওয়ার নাম করে অসহায়দের কাছে থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক খায়ের। বছর খানেক আগে পৌরসভার বাঞ্চানগর এলাকার ২৫ টি পরিবারের কাছ থেকে এ টাকা নেন তিনি। ভাতা করে দিবেন বলে হাজার হাজার টাকা নিয়ে অসহায় মানুষদের হয়রানি করছেন বলেও অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। খায়ের লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের হায়দার আলী বাড়ির আজগর আলীর ছেলে।
জানা যায়, খায়ের এক সময় ব্যবসা করলেও এখন প্রতারনার সাথে জড়িত। অসহায় ও সহজ-সরল লোকদের টার্গেট করে বিভিন্ন প্রতারনামূলক কর্মকান্ড করে আসছেন দীর্ঘদিন থেকে। বছরখানে আগে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের লামছরি গ্রামের নন্দী ব্যাপারি বাড়ির বিধবা বানোজা বেগমের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে তাকে প্রতারণার জালে বন্দি করে । মাতৃত্বকালিন ও বয়স্ক ভাতা দিবে বলে খায়ের বানোজা বেগমের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি পরিবারের কাছ থেকে টাকা উত্তোলন করেন । কিছু টাকা খায়ের সরাসরি উত্তোলন করেন। সহজ সরল মানুষকে টার্গেট করায় তার এমন প্রতারনা ফাঁদে পড়েছে ২৫টি পরিবার। যাদের জনপ্রতি ২হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা নিয়েছে। টাকা নেওয়ার পর থেকে সে মানুষের কাছে ধরা দিচ্ছে না একরকম পলাতক অবস্থায় আছেন খায়ের । এছাড়াও সরকারি ঘর দিবে বলেও বানোজা বেগমের কাছ থেকে ৪০হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়  এই প্রতারক । বিধবা বানোজা বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমি অন্যের বাড়িতে কাজ করে খাই। আমার ২ছেলে প্রতিবন্ধি, অন্য ছেলে আমাদের খবর নেয় না, একমাত্র মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি বরিশাল। কোনভাবে মানুষের কাজ করে ভাঙ্গা ঘরে দিন কাটাচ্ছি। খায়ের আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে আমাকে সরকারি ঘর পাইয়ে দিবে বলে ২মাস আগে ৪০হাজার টাকা নেয়। বছরখানেক আগে বয়স্ক ভাতা করে দিবে বলে আমার কাছ থেকে টাকা নেয়। এছাড়াও মাতৃত্বকালিন ভাতা ও বয়স্ক ভাতা করে দিবে বলে আমাদের বাড়ির অন্যদের কাছ থেকেও টাকা নিতে বলে। আমি তার কথা বিশ্বাস করে কয়েক পরিবারের কাছ থেকে টাকা তুলে তাকে দেই। এখন সে ভাতা কার্ডও দিচ্ছে না টাকাও ফেরত দিচ্ছে না। তার কাছে গেছে সে বিভিন্ন অজুহাত দিচ্ছে। অন্যদিকে ভাতা কার্ড বা টাকা না পেয়ে মানুষ আমাকে দোষারোপ করছে। কয়েকদিন আগে খোকন, রহমত, শিমু সহ কয়েকজন এসে আমার ঘর লুট করে নগদ টাকা, ঘর সংস্কারের জন্য আনা টিন নিয়ে যায়। এছাড়াও আমার উপর হামলার আশংকাও রয়েছে । আমি এ বিষয়ের সুষ্ঠু সমাধান চাই।এ বিষয়ে অভিযুক্ত খায়ের সাথে কথা বলতে তার বাড়ি গেলে সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
এ বিষয়ে লক্ষ্মীপুর পৌর ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী রাসেল বলেন, খায়েরের প্রতারনার বিষয়টি আমি জেনেছি। টুমচর ইউনিয়ন থেকেও কিছু মহিলা এসে আমার কাছে অভিযোগ করেছি। আমি তাকে ডেকে সবার টাকা ফেরত দিতে বলেছি। কিন্তু সে দিচ্ছি দেবো বলে তালবাহানা করছে।

Check Also

লক্ষ্মীপুরে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

বিশেষ প্রতিনিধি:লক্ষ্মীপুরে করোনা সংক্রমন ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে আছে ।  ঈদের পর শুরু হওয়া লকডাউনের  ২য় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: