রামগতি

রামগতিতে অসহায় মানুষের পাশে ভিপি হেলাল

রামগতিতে অসহায় মানুষের পাশে মেজবাহ উদ্দিন ভিপি হেলাল

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ঃ লক্ষ্মীপুর রামগতিতে অসহায় মানুষদের সুখে দুঃখে পাশে থেকে তাদের ভালোবাসায় এগিয়ে চলছেন রামগতি উপজেলার মাটি ও মানুষের প্রিয় মেজবাহ উদ্দিন ভিপি হেলাল । প্রতিদিন অসহায় পরিবার গুলোর পাশে গিয়ে তিনি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। নদী ভাঙ্গনের শিকার হওয়া অসহায় মানুষ ও ছিন্নমুল শিশুদের পাশে থেকে কাজ করা সহ বিভিন্ন রকম প্রতিজ্ঞা বদ্ধ ও দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে তিনি মানুষ ও মানবতার কাজ করে যাচ্ছেন। আওয়ামীলীগের জন্য নিবেদিত ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বৃহত্তর রামগতি উপজেলার মাটি ও মানুষের নেতা রামগতি উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মেজবাহ উদ্দিন (ভিপি হেলাল)। তার ত্যাগের মুল্যায়ন দল কতটুকু দিতে পেরেছে ? ত্যাগী নেতাদের দল কতটুকু মুল্যায়ন করছে এই নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে তৃণমুলে । কিন্তু তারপরও মেজবাহ উদ্দিন হেলালরা নিস্বার্থ ভাবে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি মেজবাহউদ্দিন নিজ এলাকায় কিছু অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন । করোনা কালীন সময়ে এলাকায় এলাকায় ছুটে চলছেন দরিদ্র মানুষগুলোর খোঁজ খবর নেওয়ার জন্য । সন্তানদের অনুরোধে ঈদের খুশি ভাগাভাগী করতে দায়িত্ব নিচ্ছেন অসহায় পরিবারের । মেজবাহ উদ্দিন ভিপি হেলাল বলেন, আমরা আমাদের চারপাশে তাকিয়ে যদি দেখি কতো অসহায় মানুষের প্রতিদিনের কান্না,একটু ভাগ করে নিলে উপকৃত হবে আবুল কালাম মিয়াদের মতো পরিবার ছেলে,মেয়ে,স্ত্রী সহ অন্যেরা,পবিত্র শুক্রবার নামাজ পড়তে দাঁড়ালাম দায়রা মসজিদে পাশে দাঁড়ানো বয়স্ক ব্যক্তি বয়সের ভাড়ে পড়ে যাচ্ছে,আমাকে বললো মিয়াজী আপনার কাছে একটু দেখা করতে যাবো,আমি খুবই কষ্টে আছি,আমি বললাম পরে দেখা করবেন,কিন্তু পরে ভাবলাম এই লোকটা যদি এর মধ্যে আল্লাহর ডাকে সারা দিয়ে দুনিয়া থেকে চলে যায়,তাহলে আমার বিবেক কে কোন ভাবে অপরাধের দায় থেকে বাঁচাতে পারবো না,তাই সাধ্য মত সহযোগিতা করছি । তিনি আরো বলেন, পবিত্র মাহে-রমজানের উচিলায় আল্লাহ যেন বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে সবাইকে হেফাজতে রাখে এবং সেই সাথে ২ নং চর পোড়াগাছা ইউনিয়নের পক্ষ থেকে আমি পুরো জেলাবাসীকে আগামী ঈদুলফিতরের অগ্রীম শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই । মেজবাহ উদ্দিন(ভিপি হেলাল) এর জন্ম মেঘণার কুল ঘেষে ভাঙ্গন কবলিত এলাকা বৃহত্বর রামগতি উপজেলার ৩ নং চর পোড়াগাছা ইউনিয়নের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে।রামগতি আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে যারা বেশি রাজপথে ভুমিকা রেখেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন মেজবাহ উদ্দিন( ভিপি হেলাল) । মেজবাহ উদ্দিন হেলালদের দলের জন্য অনেক ত্যাগ থাকলেও কোন এক অদৃশ্য শক্তির কাছে দলের সকল ত্যাগ মূল্যহীন হয়ে যায় । তারপরেও তারা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক ঊঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে সাথে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার নেতৃত্বে মানুষ ও মানবতার পাশে দাাঁড়াচ্ছে । তিনি মনে করেন শুধু মাত্র সরকারের উন্নয়ন কাজ দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায় না,মানুষের মন জয় করতে হলে ভালো আচরণ ভালো ব্যবহারও লাগে ঠিক তেমনি কর্মীদের ভালোবাসা দিয়ে নেতৃত্বকে টিকিয়ে রাখতে হয় । দায়িত্ব পালন কালে তিনি কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেননি। তার বিরুদ্ধে কোন রকম দুর্নীতি বা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়নি । দুঃসময়েও মুজিবের আদর্শকে প্রতিষ্ঠিত করতে প্রাণপন চেষ্টা করেছিলেন এবং অবশেষে সফল ও হয়েছেন। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এই নেতার সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, আমি রাজনীতি করি মুজিবের আদর্শের আর আমার প্রিয়নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। আমার কারো প্রতি কোন রকম বিরোধ নেই , আমি আমার ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ ,যুবলীগ এবং ছাত্রলীগ সহ সকল নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে এলাকার উন্নয়ন এবং জনগনের সেবা করে যেতে চাই । কারন আমি আমার প্রিয়নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখহাসিনা এবং তার নেতৃত্বকে এছাড়াও আমাদের জেলা উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে সম্মান করি । বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বিশ্বাস করি। তাই কোন রকম হিংসা বিদ্বেস এর উর্দ্ধে আওয়ামীলীগের জন্য কাজ করে যাবো । রামগতি উপজেলা আওয়ামীলীগকে শক্তিশালী এবং গতিশীল করা সহ এলকাবাসীর লক্ষ্যে কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। দলের জন্য এত ত্যাগ দিয়েছেন দল আপনাকে কতটুকু মূল্যায়ন করেছে এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন , দল আমাকে মূল্যায়ন করেনাই আমি তা বলবোনা তবে আশানুরুপ কিছু পাইনি । তবুও দলকে এবং মুজিবের আদর্শকে ভালোবেসে নিরলশ কাজ করে যাচ্ছি। কারন আমার বিশ্বাস কোননা কোন সময় দল আমাকে মূল্যায়ন করবেই। আওয়ামীলীগ আমার রক্তের সাথে মিশে আছে । আগামী ঈদে অসহায় গরিব মানুষগুলোর পাশে দাঁড়িয়ে একসাথে ঈদেও খুশি ভাগাভাগি করতে রামগতির অর্থশালী ব্যাক্তিদের প্রতি অনুরোধ করেন তিনি ।

Related Articles

how do you feel about this website ?

Back to top button
%d bloggers like this: